Health

কোষ্ঠকাঠিন্য-কোষ্ঠকাঠিন্যের কারণ, প্রতিরোধ ও প্রতিকার।

পৃথিবীর সকল মানুষের জন্য কোষ্ঠকাঠিন্য একটি কমন রোগ। এমন মানুষ নেই যে জীবনে একবার হলেও কোষ্ঠকাঠিন্য রোগে ভোগেন নি। সময় মত এবং ফলপ্রসূ চিকিৎসার অভাবে এই রোগ জটিল আকার ধারণ করতে পারে।

কোষ্ঠকাঠিন্যের কারণ, প্রতিরোধ ও প্রতিকার
কোষ্ঠকাঠিন্যের কারণ, প্রতিরোধ ও প্রতিকার

কোষ্ঠকাঠিন্য

দুই থেকে তিন দিন মলত্যাগ না হওয়া, মলত্যাগ কষা বা শক্ত হওয়াকেই মূলত কোষ্ঠকাঠিন্য বলা হয়। কোষ্ঠকাঠিন্য হলে মল সাধারণত শক্ত হয়, অনেক সময় পার হয়ে গেলেও মলত্যাগ হচ্ছে না, মলের অল্প অংশ বের হবার পরে বাকি অংশ বের হচ্ছে না, যার কারণে মলত্যাগের সময় প্রচন্ড ব্যথা অনুভূত হয়। তৃপ্তি অনুসারে পরিপূর্ণ মলত্যাগ হয় না।এগুলোই মূলত কোষ্ঠকাঠিন্যের লক্ষণ। কোষ্ঠকাঠিন্য হলে সঠিক সময়ে সমাধান না করতে পারলে , পাইলস বা অর্শ রোগ ছাড়াও পায়ুপথের কিছু গুরুত্বপূর্ণ রোগ তৈরি হতে পারে।

যে সকল কারণে কোষ্ঠকাঠিন্য হয়ে থাকে

কোষ্ঠকাঠিন্য যে সকল কারণে হয়ে থাকে এটা বলতে গেলে আমি প্রথমেই বলবো–
ক। কম পরিমাণ পানি পান করা।
খ। অনিয়মিত বা সঠিক সময়ে খাবার গ্রহণ না করা।
গ। আঁশ জাতীয় খাবার কম খাওয়া।
ঘ। বাহিরের বিভিন্ন ধরনের ফাস্টফুড খাবার বেশি বেশি খাওয়া।
ঙ। নিয়মিত গোসল না করা।
চ। বেশি বেশি মানসিক দুশ্চিন্তা করা।
ছ। শারীরিক পরিশ্রম না করে বসে বসে খাওয়া।
জ। মলত্যাগের অনুভূতি হওয়া বা পায়খানা চাপ আসলেও মলত্যাগ না করে ঠেকিয়ে রাখা।
ঝ। বিভিন্ন জটিল রোগের ঔষধ যেমন- ব্যথা নাশক, ডায়াবেটিস, টিউমার, ক্যান্সার, আয়রন, ক্যালসিয়াম ও অ্যালুমিনিয়াম সমৃদ্ধ ঔষধ খেলে কোষ্ঠকাঠিন্য হতে পারে।

পড়ুনঃ পানিতে ডুবে গেলে তাৎক্ষণিক করণীয়

কোষ্ঠকাঠিন্যের প্রতিরোধ ও প্রতিকার

ক। একজন মানুষকে প্রতিদিন কমপক্ষে দুই থেকে তিন লিটার পানি পান করা। বেশি বেশি পানি পান করলে হজম ক্রিয়া ভালো হয় ও মল নরম হয়।
খ। প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় অবশ্যই আর যুক্ত খাবার রাখতে হবে। প্রচুর পরিমাণ শাকসবজি খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে। নিয়মিত ডাল ও পেঁপে খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে।
গ। নিয়মিত এবং সঠিক সময়ে খাদ্য গ্রহণের অভ্যাস করতে হবে।
ঘ। শারীরিক পরিশ্রম অথবা নিয়মিত ব্যায়াম করতে হবে।
ঙ। বাইরের ফাস্টফুড খাবার গ্রহণ এড়িয়ে চলতে হবে।
চ। নিয়মিত গোসল করতে হবে।
ছ। দুশ্চিন্তা পরিহার করতে হবে।
জ। মলত্যাগের অনুভূতি হলে তা চেপে রাখা যাবেনা।
ঝ। নিয়মিত ইসবগুল ভুষি খাওয়া।
ঞ। পাকা পেঁপে খাওয়া।
ট। ছোলা খাওয়া।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button